সকাল ৬:২৩, সোমবার, ২০শে নভেম্বর, ২০১৭ ইং
/ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ / ইংল্যান্ডকে কাঁদিয়ে ফাইনালে অস্ট্রেলিয়া
ইংল্যান্ডকে কাঁদিয়ে ফাইনালে অস্ট্রেলিয়া
মার্চ ৩০, ২০১৬

ভারতের বিপক্ষে হেরে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ থেকে স্মিথ-ওয়াটসনরা ছিটকে পড়লেও অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট ভক্তদের এখনো শিরোপা স্বপ্ন দেখাচ্ছেন প্রমীলারা।

 

মেয়েদের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের প্রথম সেমিফাইনালে ইংল্যান্ডকে ৫ রানে হারিয়ে স্বপ্নের ফাইনালে উঠেছে ম্যাগ ল্যানিংয়ের দল।

 

বুধবার দিল্লির ফিরোজ শাহ কোটলায় টসে হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৬ উইকেটে ১৩২ রান করে অস্ট্রেলিয়া নারী দল। ফলে জয়ের জন্য ইংল্যান্ডের নারীদের ১৩৩ রানের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারিত হয়।

 

জবাবে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা দারুণ করলেও শেষপর্যন্ত ছন্দে থাকতে পারেনি ইংলিশ মেয়েরা। ওপেনিংয়ে অধিনায়ক চার্লতি এডুয়ার্ড ও বিয়ামন্টের ৬৭ রানের জুটি ইংল্যান্ডকে ফাইনালের স্বপ্ন দেখাচ্ছিল। কিন্তু তারা সাজঘরে ফেরার পর ইংল্যান্ডের বিশ্বকাপে টিকে থাকার স্বপ্নও যেন ফিরে গেল সাজঘরে। ব্যক্তিগত ৩১ রানে আউট হন এডুয়ার্ড। তার চেয়ে একরান বেশি করে সাজঘরে ফেরেন বিয়ামন্ট।

 

সারা টেইলরের ব্যাট থেকে আসে ২১ রান। এরপর আর কেউ প্রতিরোধ গড়তে না পারায় ২০ ওভারে ৭ উইকেটে ১২৭ রানে থামে ইংল্যান্ড। ফলে ৫ রানে হারের আক্ষেপ নিয়ে বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে পড়তে হয়েছে তাদের।

 

বল হাতে অস্ট্রেলিয়ার হয়ে মেগান স্কট ২টি এবং অ্যালেসি পেরি, ফারেল, বিয়েমস ও এরিন ওসবোর্ন ১টি করে উইকেট পান।

 

এর আগে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে অস্ট্রেলিয়াকে শুভ সূচনা এনে দেন দুই ওপেনার আলি হিলি ও অ্যালিসি ভিলানি। ওপেনিং জুটিতে ৪১ রান যোগ করেন দলের স্কোরশিটে। স্কিভারের শিকার হয়ে প্রথমে সাজঘরে ফেরেন ভিলানি (১৯)।

 

আর মার্শের বলে এলবিডল্ডিউর ফাঁদে পড়ার আগে হিলির ব্যাট থেকে আসে ২৫ রান। অ্যালিসি পেরির ব্যক্তিগত ইনিংসটি থামে ১০ রানে। ১৩ বলে ১১ রান করা ব্ল্যাকওয়েল কাটা পড়েন রানআউটে।

 

অস্ট্রেলিয়ার পক্ষে সর্বোচ্চ ৫৫ রান করেন মেগ ল্যানিং। অসি অধিনায়কের ৫০ বলের এই ইনিংসে ৪টি চারের মার ছিল। ৫৫ রান করে স্কিভারের বলে নাইটের হাতে ক্যাচ দিয়ে প্যাভিলিয়নের পথ ধরেন ল্যানিং।

 

বল হাতে ইংল্যান্ডের হয়ে ২টি উইকেট নেন স্কিভার। আর মার্শ ও জেনি গান পান একটি করে উইকেট।

 



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :