দুপুর ১:১৪, বুধবার, ২২শে নভেম্বর, ২০১৭ ইং
/ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ / আফগান ‘বাধা’ কাটিয়ে সেমির পথে ইংল্যান্ড
আফগান ‘বাধা’ কাটিয়ে সেমির পথে ইংল্যান্ড
মার্চ ২৩, ২০১৬

আফগানিস্তানকে ১৫ রানে হারিয়ে সেমিফাইনালের দৌড়ে টিকে থাকল ইংল্যান্ড। আফগান বোলিং তোপে শুরুর ধাক্কা সামলে মঈন আলীর ব্যাটে সাত উইকেটে ১৪২ রানের সংগ্রহ দাঁড় করায় ইংলিশরা। জবাবে নির্ধারিত ওভার শেষে ৯ উইকেট হারিয়ে ১৫ ‍রানের আক্ষেপে পুড়ে আফগানরা।
বুধবার দিল্লির ফিরোজ শাহ কোটলা স্টেডিয়ামে ম্যাচটিতে টস জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন ইংলিশ অধিনায়ক ইয়ন মরগান। জয়ের লক্ষ্যে খেলতে নেমে শুরুতে ইংলিশ ইনিংসের পুনরাবৃত্তি ঘটায় আফগানিস্তান। ৩৯ রানের মধ্যে তারা পাঁচ উইকেট হারিয়ে চাপের মুখে পড়ে। ইনিংসের প্রথম ওভারেই ডেভিড উইলির বলে এলবিডব্লিউর ফাঁদে পড়েন দুর্দান্ত ফর্মে থাকা মোহাম্মদ শাহজাদ। অধিনায়ক আসগর স্ত্যানিকজাই মাত্র ১ রান করেই প্যাভিলিয়নের পথ ধরেন। এরপর ‍আর কেউই দলের হাল ধরতে পারেননি।
সর্বোচ্চ ৩৫ রান (২০ বলে) করে অপরাজিত থাকেন ৯ নম্বরে ব্যাটিংয়ে নামা শফিকউল্লাহ। ১৭তম সাজঘরে ফেরেন সামিউল্লাহ শেনওয়ারি (২২)। এছাড়া ওপেনার নুর আলী জাদরান ১৭, রশিদ খান ১৫, মোহাম্মদ নবী ১২ ও নাজিবুল্লাহ জাদরান (রান আউট) ১৪ রান করে আউট হন। শেষ ওভারে জয়ের জন্য ২৪ রানের বিপরীতে বেন স্টোকসের নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ে ৮ রান নিতে সমর্থ হন শফিকউল্লাহ। দলীয় সংগ্রহ দাঁড়ায় ৯ উইকেটে ১২৭।
ইংলিশ বোলারদের মধ্যে দু’টি করে উইকেট লাভ করেন উইলি ও আদিল রশিদ। একটি করে উইকেট নেন ক্রিস জর্ডান, মঈন আলী ও বেন স্টোকস।
সুপার টেনে গ্রুপ ‘ওয়ান’ এ নিজেদের আগের ম্যাচেই দক্ষিণ আফ্রিকার দেওয়া ২৩০ রানের লক্ষ্যটা অনায়াসেই টপকে যায় ইংল্যান্ড। তবে দিল্লির উইকেটে আফগান বোলিংয়ের সামনে রীতিমতো হিমশিম খায় ইংলিশদের ব্যাটিং লাইনআপ।
অাগে ব্যাটিংয়ে নেমে দলীয় ৫৭ রানের মধ্যেই ছয় উইকেট হারিয়ে এক প্রকার ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়ে ইংলিশরা। তবে সপ্তম উইকেটে ক্রিস জর্ডানের সঙ্গে ২৮ ও অষ্টম উইকেটে ডেভিড উইলির (২০ অপ.) সঙ্গে অবিচ্ছিন্ন ৫৮ রানের জুটিতে মাঝারি পুঁজি এনে দেন মঈন আলী। এ বাঁহাতি ব্যাটসম্যান ৩৩ বলে ৪১ রানের ইনিংস খেলে অপরাজিত থাকেন। নির্ধারিত ওভার শেষে দলীয় স্কোর দাঁড়ায় সাত উইকেটে ১৪২।
দুই ওপেনার জেসন রয় (৫) ও জেমস ভিঞ্চি ২২ রান করে আউট হন। আগের ম্যাচের জয়ের নায়ক জো রুট (১২) রান আউটের ফাঁদে পড়েন। মোহাম্মদ নবীর বলে ক্লিন বোল্ড হয়ে শূন্য রানে সাজঘরে ফেরেন মরগান। বেন স্টোকস ৭ ও জস বাটলার ৬ ও পেসার ক্রিস জর্ডানের ব্যাট থেকে আসে ১৫ রান।
আফগানদের হয়ে দু’টি করে উইকেট নেন রশিদ খান ও মোহাম্মদ নবী। একটি করে উইকেট লাভ করেন আমির হামজা ও সামিউল্লাহ শেনওয়ারি।
গুরুত্বপূর্ণ জয়ে পয়েন্ট টেবিলে চার থেকে দুই নম্বরে উঠে এলো ইংল্যান্ড। তিন ম্যাচ শেষে দুই জয় ও এক পরাজয়ে ইংলিশদের সংগ্রহ ৪ পয়েন্ট। সমান পয়েন্টে রান-রেটে এগিয়ে থাকায় শীর্ষেই এক ম্যাচ কম খেলা ওয়েস্ট ইন্ডিজ। টানা তিন হারে তলানিতে আফগানিস্তান। দুই ম্যাচে সমান এক জয়ে যথাক্রমে তৃতীয় ও চতুর্থ স্থানে দক্ষিণ আফ্রিকা, শ্রীলঙ্কা।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :