সকাল ১১:৩৮, শুক্রবার, ২০শে জানুয়ারি, ২০১৭ ইং
/ এসএ গেমস / স্বর্ণ জিতে অবাক শাকিল!
স্বর্ণ জিতে অবাক শাকিল!
ফেব্রুয়ারি ১০, ২০১৬

এসএ গেমসে বাংলাদেশ পেল চতুর্থ স্বর্ণ

কবিরুল ইসলাম, গোহাটি থেকে : এসএ গেমসের শ্যুটিংয়ের শুরুতেই চমক দেখিয়েছে বাংলাদেশ। ৫০ মিটার পিস্তলে অপ্রত্যাশীতভাবে দেশকে স্বর্ণ পদক এনে দিয়েছেন শাকিল আহম্মেদ। এই ইভেন্টে প্রায় দুই যুগ ধরে কোন স্বর্ণ ছিল না বাংলাদেশের ঝুলিতে। তাই পিস্তল ইভেন্ট নিয়ে কোন আগ্রহ ছিল না কারো ভেতরেই। হিসেব-নিকেশের বাইরে থাকা সেই ইভেন্ট থেকেই দেশের হয়ে চতুর্থ স্বর্ণ পদক জয় করেন খুলনার এ শ্যুটার। স্বাগতিক ভারতের শ্যুটার ওম প্রকাশকে পেছনে ফেলে শ্রেষ্ঠত্ব অর্জন করেছেন প্রথমবারের মতো আন্তর্জাতিক কমপিটিশনে লড়াই করতে আসা শাকিল। তিনি স্কোর করেছেন ১৮৭ দশমিক ৬। এই ইভেন্টের ব্রোঞ্জ গেছে পাকিস্তানের কলিমউল্লাহ খান। চলতি এ গেমসে এটা বাংলাদেশের পুরুষ অ্যাথলেটদের প্রথম স্বর্ণ পদক জয়। এর আগে ভারোত্তোলন থেকে মাবিয়া আক্তার সীমান্ত দেশের হয়ে প্রথম স্বর্ন জয় করেছিলেন। আর সুইমিং ইভেন্ট থেকে মাহফুজা আক্তার শিলা টানা দু’টি স্বর্ণ জয় করে দেশের মুখ উজ্জ্বল করেছিলেন।
পিস্তলে সর্বশেষ বাংলাদেশকে স্বর্ণ এনে দিয়েছিলেন আতিকুর রহমান। সেটি ছিল ১৯৯১ সালে শ্রীলঙ্কার কলম্বোতে অনুষ্ঠিত সাফ গেমসে। দুই বছর পর ঢাকায় অনুষ্ঠিত সাফ গেমসেও স্বর্ণ জয় করে দেশের পতাকাকে উর্ধ্বমূখী করেছিলেন আতিক। এরপর এ ইভেন্টে শুরু হয় স্বর্ণ খড়া। কোন শ্যুটারই স্বর্ণ পদক বয়ে আনতে পারছিলেন না। প্রায় দুই যুগ পর পিস্তল ইভেন্টের হারানো গৌরব ফিরে আসলো শাকিলের হাত ধরে। নিজের ইভেন্ট থেকে স্বর্ণ জয় করতে পারবেন, সেটা কল্পনার মধ্যেও ছিল না শাকিলের। যখন পদক নিশ্চিত হয়ে গেলো, তখন গৌহাটির কাহিলিপাড়ার শ্যূটিং রেঞ্জে উৎসবে মেতে উঠলেন শ্যুটিং ফেডারেশনের কর্মকর্তারা। বাংলাদেশীদের উৎসবে রংয়ে রঙ্গীন হয়ে উঠলো পুরো রেঞ্জ। স্বর্ণ জয়ী শাকিল নিজেও অবাক হয়ে রইলেন খানিক সময়। স্বাগতিক শ্যুটার ওম প্রকাশকে পেছনে ফেলে স্বর্ণ জয় করাটা তার কাছে তখনও বিশ্বাস হয়নি। যখন ঘোর ভাঙ্গল তখন আর আবেগ ধরে রাখতে পারছিলেন না এ শ্যুটার, ‘সত্যিকার অর্থেই আমি ভাবতে পারিনি ওম প্রকাশকে পেছনে ফেলে স্বর্ণ জিততে পারবো। তবে আত্মবিশ্বাসের কোন কমতি ছিল না। আমি আমার মনোযোগ এক মুহূর্তের জন্যও নষ্ট করিনি। নিজের শতভাগ দিয়ে চেষ্টা করেছি। আর তাতেই সফল হয়েছি। দেশের জন্য এতো বড় সম্মান বয়ে আনতে পেরে আমি খুব খুশী। এ অনুভুতি আসলে ভাষায় প্রকাশ করার মতো নয়।’
স্বর্ণ জয় করতে গিয়ে স্বাগতিক শ্যুটার সঙ্গে বেশ ঘাম ঝড়াতে হয়েছে শাকিলকে,-‘ভারতীয়দের প্রস্তুতি আমাদের চেয়ে অনেক ভালো। তাদের পরাজিত করতে অনেক মনসংযোগের প্রয়োজন হয়েছে। শেষ পর্যন্ত জয়ী হতে পারায় বেশ ভালো লাগছে।’ সেনাবাহিনীতে চাকরী করা এ শ্যুটারের সাফল্যের জন্য নিজ সংস্থার প্রতি কৃতজ্ঞ,-‘সেনাবাহিনী আমাকে নানাভাবে সাহায্য করছে। তাদের সহযোগিতা ছাড়া এই সাফল্য পাওয়া সম্ভব হতো না। সেনাবাহিনীর কাছে আমি বিশেষভাবে কৃতজ্ঞ।’ সাফ গেমসে স্বর্ণ জয়ের পর এখন তার আত্মবিশ্বাস বেশ উর্ধ্বমূখী। চোখ তার আরও বড় আসরে। নিজেকে সেভাবেই গড়ে তুলতে চান খুলনার এ শ্যুটার,-‘বাংলাদেশের যে কোনো ক্রীড়াবিদের জন্য সাফ গেমসে স্বর্ণ জয় বেশ গৌরবের। তবে আমি আরো বড় আন্তর্জাতিক আসরে দেশের হয়ে পদক জিততে চাই।’



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :