দুপুর ১২:৪৪, মঙ্গলবার, ২৫শে এপ্রিল, ২০১৭ ইং
/ অনূর্ধ্ব ১৯ বিশ্বকাপ / সেমিফাইনালের ভাবনা নেই মিরাজদের!
সেমিফাইনালের ভাবনা নেই মিরাজদের!
ফেব্রুয়ারি ১০, ২০১৬

নতুন স্বপ্নের লক্ষ্যে বৃহস্পতিবার ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে মাঠে নামছে বাংলাদেশের যুবারা। প্রথমবারের মত সেমিফাইনালে খেললেও এটা নিয়ে খুব বেশি মাতামাতি করছেন না বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দলের খেলোয়াড়রা। কারণ, সেমিফাইনাল কিংবা বড় ম্যাচ- এসব নিয়ে ভাবলেই বাড়তি চাপে পড়ে যাবেন বলে জানালেন দলের অধিনায়ক মেহেদি হাসান মিরাজ। তাই সাধারণ অন্য ম্যাচের মত এ ম্যাচকেও ভাবছেন তারা। তবে ভাবনায় যাই থাকুক জিততে হবে, এটাই মূল লক্ষ্য বলে জানালেন মিরাজ।
প্রথমবারেরমত সেমিফাইনালে খেলতে পারায় রোমাঞ্চ, উত্তেজনা নাকি চাপ- কোনটা কাজ করে? জানতে চাইলে মিরাজ বলেন, ‘এগুলোর কোনটাই আসলে বেশি না। কারণ আসলে আমরা যদি এখানে খুশি থাকি, তাহলে এখানেই শেষ করতে হবে। আমরা কিন্তু খুশি না। আমাদের লক্ষ্য একটি একটি করে ম্যাচ। টুর্নামেন্টের শুরু থেকেই স্যার (বাবুল) একটা কথাই বলেছে, আমরা প্রতিদিন একটা করে ম্যাচ খেলবো আর একটা করে জিতবো। এখন অবস্থানটা আমাদের কাছে এমন যে, সেমিফাইনালে উঠেছি; এই সেমিফাইনাল বিষয়টা নিয়ে আমরা কেউ চিন্তাই করছি না। আমাদের মাথার ভেতর কাজ করছে না। আমার চিন্তা কালকে একটা ম্যাচ ওটা আমাদের জিততে হবে। তারপরও সামনে যা হবার হবে… নো প্রবলেম!’
নিজেরা সেমিফাইনাল নিয়ে না ভাবলেও বাহির থেকে কোন চাপ রয়েছে কিনা জানতে চাইলে তা নাকচ করে দেন মিরাজ। এ প্রসঙ্গে বুধবার মিরপুর শের-ই বাংলা স্টেডিয়ামে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি আরও বলেন, ‘যখন আমি ক্রিকেট খেলা শুরু করি তখন আসলে পরিবার, দর্শকদের কথাও চিন্তা করি না। বাইরের কোন চিন্তাও মাথায় ঢুকে না। তখন একটা চিন্তা থাকে, বলটা আসছে কিভাবে ভালো খেলবো। কিভাবে রান করতে হবে। কিভাবে উইকেট নিতে হবে। এটাই চিন্তাই করি।’
পরিবার থেকে কোন চাপ আছে কি না জানতে চাইলে মিরাজ বলেন, ‘আমার পরিবার সেভাবে খেলা বোঝে না। তারা শুধু দেখে রান করেছি কি না কিংবা উইকেট পেয়েছি কি না। এটা হলেই বাবা-মা খুশি। তারা এটাই ভালো বোঝে। ওই রকম কোন চাপও দেয় না। অবশ্যই পরিবার চায় ভালো কিছু হোক। আমাদের সঙ্গে পরিবারের যোগাযোগ খুব কম হয়। আমরা তাদের সঙ্গে অল্প কিছুক্ষন কথা বলি। কারণ আমাদের এখন ক্রিকেট নিয়ে ফোকাস করতে হয়। আমাদরে সামনে দুটি ম্যাচ আছে। বাবা-মা একটা কথাই বলে, তোমাদের সাধ্যমত চেষ্টা করো, খারাপ হলে মন খারাপ করো না। সামনে হবে ইনশাল্লাহ।’
উল্লেখ্য, বৃহস্পতিবার মিরপুর শের-ই বাংলা ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ফাইনালের লড়াইয়ে মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ ও ওয়েস্ট ইন্ডিজ। প্রথম সেমিফাইনালে শ্রীলংকাকে ৯৭ রানে হারিয়ে ফাইনালে উঠেছে ভারত।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :