রাত ১০:৪২, বুধবার, ২৬শে জুলাই, ২০১৭ ইং
/ ফুটবল / সিঙ্গাপুরে শেখ জামালের বড় হার
সিঙ্গাপুরে শেখ জামালের বড় হার
ফেব্রুয়ারি ২৩, ২০১৬

এশিয়ান ফুটবল কনফেডারেশন (এএফসি) কাপের চূড়ান্ত পর্বের প্রথম খেলায় সিঙ্গাপুরের ট্যাম্পানিস রোভার্স এফসি’র কাছে ৪-০ গোলের বড় ব্যবধানে হেরেছে শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব। সিঙ্গাপুর সিটির জুরং ওয়েস্ট স্টেডিয়ামের এ ম্যাচে শেখ জামালকে বড় ব্যবধানে হারায় দেশটির সবচেয়ে ধনী এই ফুটবল ক্লাব। এর মধ্যে একটি আত্মঘাতী গোলের ঘটনাও ঘটে।
বাংলাদেশ সময় বিকাল সাড়ে ৫টায় খেলা শুরুর বাঁশি বাজার ২ মিনিটের মাথায় প্রথমবারের মতো বাংলাদেশের প্রতিনিধিদের জালে বল পাঠান হাফিস সুজাদ। প্রথম অর্ধেই দ্বিতীয়বার গোল হজম করতে হয় শেখ জামালকে। ৩৩ মিনিটে গোল করেন বিল মেহমেত। ২-০ গোলের ব্যবধানে পিছিয়ে থেকে বিরতিতে যায় শেখ জামাল। দ্বিতীয়ার্ধের খেলা শুরুর ৭ মিনিটের মাথায় তৃতীয়বারের মতো শেখ জামালের গোলরক্ষককে পরাস্ত করে ট্যাম্পানিস রোভার্স। অাফিক ইউনুস ৫২ মিনিটের মাথায় ব্যবধান ৩-০ তে নিয়ে যান। আর অাত্মঘাতী গোলের বাজে ঘটনায় চতুর্থ গোলটি হজম করতে হয় জামালকে।
বড় ব্যবধানে হারের কারণে টুর্নামেন্টের ‘ই’ গ্রুপে চতুর্থ অবস্থানে রয়েছে শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব। এর অাগে গত ২০শে ফেব্রুয়ারি সিঙ্গাপুর পৌঁছায় শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব।
ট্যাম্পানিস রোভার্স দলটি স্থানীয় এস-লিগে গতবারের রানার্সআপ। তিনবার সিঙ্গাপুর সুপার কাপ ও সাতবার সিঙ্গাপুরের জাতীয় লিগে চ্যাম্পিয়ন ট্যাম্পানিস রোভাস সিঙ্গাপুরের সবচেয়ে ধনী ক্লাবও। ‘ই’ গ্রুপে হ্যাটট্রিক লিগ শিরোপার হাতছানিতে থাকা জামাল ধানমন্ডি ক্লাবের অন্য দুই প্রতিপক্ষ মালয়েশিয়ার সেলেঙ্গার এফসি ও ফিলিপাইনের সেরেস এফসি। হোম অ্যান্ড অ্যাওয়ে পদ্ধতিতে ৬টি ম্যাচ হবে। গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন ও রানার্সআপরা খেলবে দ্বিতীয় পর্বে, এরপর কোয়ার্টার ফাইনাল।
শেখ জামাল স্কোয়াডে রয়েছেন: সাহিদুল আলম সোহেল, মাজহারুল ইসলাম হিমেল, মাকসুদুর রহমান মোশতাক (গোলরক্ষক) ইয়াসিন খান, ইয়ামিন আহমেদ চৌধুরী মুন্না, তপু বর্মন, মো. লিঙ্কন, কেস্ট কুমার বোস, রিদওয়াদ বিন রাকিন, (ডিফেন্ডার), জামাল ভুঁইয়া, নুর রহমান জোসেফ, জাহেদ পারভেজ চৌধুরী, সোহেল রানা, এনগুয়েন হ্যাঙ (মিডফিল্ডার), ওয়েডসন এনসেলম (অধিনায়ক), এমেকা ডারলিংটন, ডারো ল্যান্ডিং ও মোহাম্মদ এনামুল হক।
শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্র ৮ বছর পর বাংলাদেশি ক্লাব হিসেবে এএফসি কাপে খেলার সুযোগ পেয়েছিলো গত মৌসুমে। কিন্তু বিদায় নেয় প্রথম রাউন্ড থেকেই। তাদের আগে মুক্তিযোদ্ধা (২০০৪, ২০০৫), ব্রাদার্স (২০০৬) ও মোহামেডান (২০০৬) এশিয়ার দ্বিতীয় সেরা এই টুর্নামেন্টটি খেললেও থেমে গেছে প্রথম পর্বে। প্লে¬-অফ খেলে চূড়ান্ত পর্বে উঠে শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :