সকাল ৭:৪৪, শনিবার, ২৫শে নভেম্বর, ২০১৭ ইং
/ এসএ গেমস / শেষ চারে উঠেও হ্যান্ডবল শিবিরে হতাশা
শেষ চারে উঠেও হ্যান্ডবল শিবিরে হতাশা
ফেব্রুয়ারি ১৩, ২০১৬

সাউথ এশিয়ান (এসএ) গেমসের মহিলা হ্যান্ডবলে সেমিফাইনাল নিশ্চিত করেছে বাংলাদেশ। কিন্তু শেষ চারে উঠেও হতাশা বিরাজ করছে লাল-সবুজ শিবিরে। কারণ সেমিফাইনালের মতো গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচের আগে দলের দুই গোলরক্ষকের একজনকেও পাচ্ছে না বাংলাদেশ। দলের নিয়মিত গোলরক্ষক শিলা রায়ের মা মারা যাওয়ায় শনিবারই শিলং ছেড়ে গেছেন তিনি। আর গ্রুপের শেষ ম্যাচে এদিন মালদ্বীপের বিপক্ষে জাতীয় মহিলা দলের অতিরিক্ত গোলরক্ষক সুশীলা হাতে ব্যথা নিয়ে মাঠ ছেড়েছেন ম্যাচ শেষের আগেই। যে কারণে বাকি সময় অধিনায়ক সাহিদাকে গোলবার সামলাতে হয়েছে। সুশিলা সুস্থ্য হয়ে উঠতে না পারলে গোলবার কে আগলে রাখবেন- তা নিয়েই চিন্তায় থাকতে হচ্ছে বাংলাদেশ শিবিরকে।
শনিবার গ্রুপের শেষ ম্যাচে বাংলাদেশ ৩৪-২৭ গোলে মালদ্বীপকে পরাস্ত করে সেমিফাইনালে পা রাখে। কিন্তু ম্যাচ শেষ হওয়ার আগে অনিয়মিত গোলরক্ষক সুশিলা হাতে ব্যাথা পেয়ে মাঠ ছাড়েন। রোববার সেমিফাইনালে বাংলাদেশকে লড়তে হবে ‘এ’ গ্রুপ রানার্সআপ নেপালের বিপক্ষে। স্থানীয় সময় দুপুর দেড়টায় খেলাটি শুরু হবে। শেষ চারের মতো গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচের আগে দুই গোলরক্ষককে হারিয়ে বেশ দুঃচিন্তায় পড়েছে বাংলাদেশ শিবির। দলের কোচ দিদার হোসেন জানান, ‘বাংলাদেশ ছাড়া গেমসে অংশগ্রহণকারী প্রতিটি দলই ১৬ জন করে খেলোয়াড় নিয়ে গোহাটি এসেছে। অথচ বাংলাদেশ অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশনের (বিওএ) নির্দেশে ১৪ খেলোয়াড় নিয়ে দল গড়েছে হ্যান্ডবল ফেডারেশন। নিশ্চিত একটি পদক হাতছাড়া হওয়ার শঙ্কায় পড়েছি। আরো দু’জন খেলোয়াড় দলে থাকলে গোলরক্ষক নিয়ে ভাবতে হতো না। এদের মধ্যে একজন অবশ্যই গোলরক্ষক থাকতেন। বিওএ’র নির্দেশনা মানতে গিয়ে এখন আমরা বিপদে পড়ে গেছি। বলতে পারছি না সেমিফাইনালে গোলরক্ষক নিয়ে মাঠে নামতে পারবো কিনা। যদি সুশীলার হাতের ইনজুরি না সারে তাহলে অন্য পজিশনের খেলোয়াড়কেই গোলরক্ষকের দায়িত্ব পালন করতে হবে। এক্ষেত্রে ফলাফল কি হয় বলতে পারছি না।’



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :