ভোর ৫:১৬, শনিবার, ১৭ই নভেম্বর, ২০১৭ ইং
/ অলিম্পিক (বিওএ) / শূন্য রানেই অলআউট!
শূন্য রানেই অলআউট!
ফেব্রুয়ারি ১২, ২০১৬

এগারোজন ব্যাটসম্যান। না টপঅর্ডার, না মিডলঅর্ডার, না লোয়ার অর্ডার। কোনো অর্ডারের কোনো ব্যাটসম্যানই স্কোরকার্ডের সূচনা করতে পারেননি! এমনকি ওয়াইড-নো বলও এলো না ‘রান-দেবতা’ হয়ে। আর তাই একেবারে অবিশ্বাস্যভাবে শূন্য রানেই অলআউট হয়েছে ইংল্যান্ডের একটি দল। সিক্স-এ-সাইড চ্যাম্পিয়নশিপের ওই খেলায় দলের ১০ উইকেট পড়ে গেছে মাত্র ২০ বলেই। বৃহস্পতিবার ইংল্যান্ডের ক্রিকেট বোর্ড (ইসিবি) আয়োজিত ওই চ্যাম্পিয়নশিপে ক্রাইস্টচার্চ ইউনিভার্সিটি দলের সঙ্গে খেলতে নেমে এই লজ্জায় বিপর্যস্ত হয় ব্যাপচিলড দল।
ইসিবি জানায়, ক্যান্টাবুরিতে ওই চ্যাম্পিয়নশিপের কেন্ট আঞ্চলিক ফাইনাল চলছিল ক্রাইস্টচার্চ ইউনিভার্সিটি ও বাপচিলডের মধ্যে। প্রথমে ব্যাট করতে নেমে ক্রাইস্টচার্চ ১২০ রান সংগ্রহ করে। ১২১ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে তাসের ঘরের মতো ভেঙে পড়ে বাপচিলড টিমের ব্যাটিং লাইন আপ।
বাপচিলডকে অলআউট করে দেওয়া ক্রাইস্টচার্চের স্পিনার মাইক রোজ বলেন, সত্যিই আমরা কেউ বিশ্বাস করতে পারছি না যে একটি দলকে শূন্য রানে আউট করে দিয়েছি। তবে, ক্রিকেটে এটাই প্রথম শূন্য রানে অলআউট হওয়ার ঘটনা নয়। এর আগে, ১৯৬৪ সালে ওই লজ্জায় পড়ে কেন্ট এলাকার মার্টিন ওয়াল্টার্স নামে একটি দল। সল্টউড সিসি দলের বেঁধে দেওয়া ২১৬ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে ৮ দশমিক ২ ওভার খেলেও কোনো রান সংগ্রহ করতে ব্যর্থ হয় ওয়াল্টার্স।
প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে সর্বনিম্ন রানের রেকর্ড ৬। ১৮১০ সালে ইংল্যান্ডের সেসময়কার অকেশনাল টিম ‘দ্য বিএস’ এই স্কোরের লজ্জায় পড়ে জাতীয় দলের বিপক্ষে। আর টেস্ট ক্রিকেটে সর্বনিম্ন ২৬ রানের রেকর্ড হয় ১৯৫৫ সালে। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সেই স্কোরের লজ্জায় পড়েছিল নিউজিল্যান্ড।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :