সকাল ১১:০১, মঙ্গলবার, ২৩শে মে, ২০১৭ ইং
/ এসএ গেমস / বিদ্যুৎ এলো ‘সোনার মেয়ের’ বাড়িতে
বিদ্যুৎ এলো ‘সোনার মেয়ের’ বাড়িতে
ফেব্রুয়ারি ১৮, ২০১৬

গ্রামের বাড়িতে ফিরে সবার ভালোবাসায় আপ্লুত এসএ গেমসে সাঁতারে বাংলাদেশকে সোনা এনে দেওয়া মাহফুজা আক্তার শীলা। তিনি বলেছেন, “প্রধানমন্ত্রী আমার দায়িত্ব নিয়েছেন, এর থেকে বড় কিছু হয় না। যে সম্মান আমি বাংলাদেশের জন্য দিয়েছি,তার চেয়ে বড় সম্মান আমাকে দিয়েছে দেশ।”
এবারের এসএ গেমসে মেয়েদের ১০০ মিটার ব্রেস্টস্ট্রোক আর ৫০ মিটারে দুটো সোনা জিতেছেন বাংলাদেশের এই সাঁতারু। তবে তার জীবনের পথ ছিল আরও কঠিন। সোনা জয়ের খবরের সঙ্গে সঙ্গে মাহফুজার পরিবারের দারিদ্র্য আর সংগ্রামী জীবনের কথাও গণমাধ্যমে এসেছে। সেই খবরে খোদ প্রধানমন্ত্রীকে পাশে পেয়েছেন এই কৃতি সাঁতারু।
যশোর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি বুধবারই মাহফুজার বাড়িতে বিদ্যুৎ সংযোগ দিয়েছে। আর্থিক সঙ্কটে তার মা যে সোনার পদকটি বিক্রি করে দিয়েছিলেন, শুক্রবার নাগরিক সংবর্ধনায় সেটি ফিরিয়ে দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন জেলা প্রশাসক হুমায়ুন কবির। বৃহস্পতিবার দুপুরে মাহফুজা ঢাকা থেকে বাসে করে যশোর উপশহর বাস স্ট্যান্ডে পৌঁছালে তার মা করিমন্নেসা, বাবা আলী আহমেদ এবং প্রশাসনের কর্মকর্তারা তাকে অভিনন্দন জানান।
জেলা প্রশাসক হুমায়ুন কবির, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) সাবিনা ইয়াসমিন, পুলিশ সুপার আনিসুর রহমান এ সময় উপস্থিত ছিলেন। এরপর যশোরের এই কৃতি সন্তানকে নিয়ে যাওয়া হয় সার্কিট হাউসে। সেখানে মাহফুজাকে মিষ্টিমুখ করান জেলা মহিলা ক্রীড়া সংস্থার সভাপতি রুনা লায়লা।
মাহফুজা বলেন, “আমি কখনও ভাবিনি যশোরবাসী আমাকে এত ভালবাসা দেবে। আমি যে এতোকিছু পাব, এমন সারপ্রাইজড হব ভাবতে পারিনি। “ইতোমধ্যে খবর পেয়েছি আমার বাড়ির যে সমস্যা ছিল তার সমাধান হয়েছে। এজন্য জেলা প্রশাসক ও প্রশাসনের প্রতি আমি কৃতজ্ঞ।”
সার্কিট হাউজ থেকে দুপুরেই গ্রামের বাড়ি যশোরের অভয়নগর উপজেলার নওয়াপাড়ার উদ্দেশ্যে রওনা দেন মাহফুজা। জেলা প্রশাসক হুমায়ুন কবির বলেন, অভয়নগরে এই সাঁতারুকে গণসংবর্ধনা দেওয়া হবে। আর শুক্রবার নওয়াপাড়ায় হবে নাগরিক সংবর্ধনা।
তিনি বলেন, “মাহফুজা এখন শুধু যশোরের মেয়ে নন, তিনি সারাদেশের মেয়ে। তার সুবিধার জন্য তাদের গ্রামের বাড়িতে ইতোমধ্যে বিদ্যুৎ সংযোগ দেওয়া হয়েছে। নতুন একটি বাড়িও করে দেওয়া হবে।”



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :