সকাল ৬:২৮, শুক্রবার, ২৮শে এপ্রিল, ২০১৭ ইং
/ অনূর্ধ্ব ১৯ বিশ্বকাপ / বাংলাদেশের স্পিন ও ফিল্ডিংয়ে ৬৫ রানেই শেষ নামিবিয়া
বাংলাদেশের স্পিন ও ফিল্ডিংয়ে ৬৫ রানেই শেষ নামিবিয়া
ফেব্রুয়ারি ২, ২০১৬

বাংলাদেশের স্পিন আক্রমণ ও দুর্দান্ত ফিল্ডিংয়ে দাঁড়াতেই পারল না নামিবিয়ার ব্যাটসম্যানরা। গ্রুপ শীর্ষে ওঠার লড়াইয়ে এবারের টুর্নামেন্টে চমকে দেওয়া দলটিকে ৬৫ রানেই গুটিয়ে দিল বাংলাদেশ।

প্রথম দুই ম্যাচের পারফরম্যান্স বলে দিচ্ছিল বাংলাদেশের সামনে বড় চ্যালেঞ্জ গড়তে পারে নামিবিয়া। আদতে স্বাগতিকদের স্পিনের জবাবই খুঁজে পেল না আইসিসির সহযোগী দেশটি। আর হাঁসফাঁস করতে থাকা ব্যাটসম্যানদের আরও মুড়িয়ে দিল বাংলাদেশের দুর্দান্ত ক্যাচিং ও গ্রাউন্ড ফিল্ডিং।

সকালে প্রথম ব্রেক থ্রুটা অবশ্য দিয়েছিলেন একজন পেসার। কক্সবাজার শেখ কামাল আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে টস জিতে ফিল্ডিংয়ে নামে বাংলাদেশ। দুই পেসার আব্দুল হালিম ও মোহামমদ সাইফুদ্দিন একটু সময় নিয়েছেন লাইন ও লেংথ খুঁজে পেতে। তবে খুব বেশি অপেক্ষা করতে হয়নি ব্রেক থ্রুর জন্য।

চতুর্থ ওভারে দলকে প্রথম উইকেট এনে দেন সাইফুদ্দিন। গালিতে ডান দিকে ঝাঁপিয়ে দুর্দান্ত রিফ্লেক্সে এসজে লফটি-ইটনের ক্যাচ নেন নাজমুল হোসেন শান্ত।

বাংলাদেশের পরের উইকেটটিও এসেছে অসাধারণ ফিল্ডিংয়ে। গালি থেকে দারুণ থ্রোতে উইকেট ভেঙেছিলেন আরিফুল ইসলাম, ব্যাটসম্যান তখনও ক্রিজে। কিন্তু রান নিতে ছুটেছিলেন ওভারথ্রোতে। ছুটে গিয়ে উইকেটকিপার জাকির হাসান গুলির বেগে সরাসরি থ্রোয়ে আউট করেছেন নামিবিয়ান অধিনায়ক জেন গ্রিনকে।

নামিবিয়ার ইনিংসের একমাত্র দু অঙ্কের জুটি এসেছে এরপরই। তৃতীয় উইকেটে ২৭ রানের জুটি গড়েন নিকো ড্যাভিন ও লোহান লরেন্স। দুর্দান্ত এক আর্ম ডেলিভারিতে ড্যাভিনকে (১৯) ফিরিয়ে জুটি ভাঙেন সালেহ আহমেদ শাওন। এরপর থেকে শুধুই ব্যাটসম্যানদের আসা-যাওয়া।

কুইকার ডেলিভারিতে মাইকেল ফন লিনজেনকে এলবিডব্লিউ করে যুব ওয়ানডেতে সবচেয়ে বেশি উইকেটের রেকর্ড স্পর্শ করেন অধিনায়ক মেহেদি হাসান মিরাজ। বল হাতে নিয়ে প্রথম ওভারেই উইকেট নেন অফ স্পিনার সাঈদ সরকার, মিড উইকেটে আরেকটি রিফ্লেক্স ক্যাচ নেন শান্ত।

নামিবিয়ার দক্ষিণ আফ্রিকাকে হারানোর নায়ক লরেন্স লড়াই করছিলেন আবারও। কিন্তু নিজের প্রথম ওভারেই দ্রুতগতির এই সোজা বলে লরেন্সকে (১৭) বোল্ড করেন আরিফুল ইসলাম। এই বাঁহাতি স্পিনারকে পরে দ্বিতীয় উইকেট উপহার দেয় সিলি মিড অনে পিনাক ঘোষের দুর্দান্ত ক্যাচ।

নামিবিয়া ইনিংসের শেষটিও বাংলাদেশ দলে জন্য আসে দারুণ এক উপলক্ষ হয়ে। শেষ উইকেট নিয়ে ইনিংস গুটিয়ে দেওয়ার পাশাপাশি সর্বোচ্চ উইকেটের রেকর্ডটি নিজের করে নেন মিরাজ।

বাংলাদেশের গ্রুপ শীর্ষে থাকার ভিত তখন গড়া হয়ে গেছে।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :