রাত ৪:২০, মঙ্গলবার, ২৬শে জুন, ২০১৭ ইং
/ ক্রিকেট / ফিল্ডিং-বোলিংয়েই নির্ভার থাকছেন জাহানারা
ফিল্ডিং-বোলিংয়েই নির্ভার থাকছেন জাহানারা
ফেব্রুয়ারি ১৮, ২০১৬

আইসিসি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের এবারের আসরে ফিল্ডিং এবং বোলিংকেই দলের প্রধান শক্তি হিসেবে দেখছেন বাংলাদেশ নারী ক্রিকেট দলের ক্যাপ্টেন জাহানারা আলম। আর এই দুই বিভাগের উপর শতভাগ নির্ভরশীল হয়েই বিশ্বকাপের এবারের আসর কাঁপাবেন বলে অভিমত দিলেন এই টাইগ্রেস। বৃহস্পতিবার দুপুরে মিরপুর একাডেমি মাঠে অনুশীলনের পর তিনি দলের প্রধান শক্তি সম্পর্কে এমন অভিমত দেন।
টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের এবারের আসরে ‘বি’ গ্রুপে থাকা বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ হিসেবে থাকছে স্বাগতিক ভারত, গেল আসরের রানারআপ ইংল্যান্ড, সেমিফাইনালিস্ট ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও পাকিস্তানের মতো শক্ত প্রতিপক্ষরা। সন্দেহে নেই ব্যাটিং, বোলিং ও ফিল্ডিং এই তিন বিভাগের দারুণ সমন্বয়ে গেল বছরের নভেম্বর-ডিসেম্বরে ব্যাংককে কোয়ালিফাইং খেলেই মূল আসরে জায়গা করে নিয়েছে চম্পিকা গামাগের দল।
তবে, বিশ্বকাপের মঞ্চে নাকি দলটির প্রধান ভরসা হিসেবে থাকছে বোলিং ও ফিল্ডিং। আগে স্পিনাররা বোলিং কাণ্ডারি হিসেব ভূমিকা পালন করলেও এবারের আসরে সেই শক্তির পালে জোর হাওয়া লাগিয়েছেন পেসাররাও। আর আউটস্ট্যান্ডিং ফিল্ডিংতো আছেই। তাই এই দু’য়ের সম্বনয়ে গ্রুপপর্বের ম্যাচ জিততে জাহানারাকে বেশ নির্ভারই মনে হলো।
নির্ভার না থাকার কোন কারণও অবশ্য নেই। কারণ দলে থাকছেন অভিজ্ঞ সালমা, রুমানা, শুকতারা ও খাদিজাতুল কুবরার মতো স্পিনার। আর জাহানারা, লতা ও পান্নার মতো পেসাররা তো আছেনই। তাইতো বোলিং নিয়ে জাহানারার এমন ভরসা। ‘ফিল্ডিং ও বোলিংই আমাদের প্রধান শক্তি। স্পিন ও পেস দুই ধরনের বোলাররাই আশা করছি এবারের বিশ্বকাপে ভাল করবে।’ জানান জাহানারা।
১৫ মার্চ স্বাগতিক ভারতের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে এবারের বিশ্বকাপ মিশন শুরু করবে জাহনারা বাহিনী। ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হবে বেঙ্গালুরুর চিন্বাস্বামী স্টেডিয়ামে। যেখানে এর আগে কখনই তাদের খেলা হয়নি। তাই কন্ডিশন ও উইকেট নিয়ে ভাবনা থাকাটাই স্বাভাবিক। কিন্তু জাহানরার নাকি সেই ভাবনাও নেই, ‘আমাদের এর আগে দু’বার ভারতে খেলা হলেও বেঙ্গালুরুতে কখনই খেলা হয়নি। তাই ওখানকার আবহাওয়া, কন্ডিশন ও উইকেট সম্পর্কে কিছুই জানিনা। কিন্তু তাতে খুব সমস্যা হবেনা। ওই কন্ডিশনের সঙ্গে মানিয়ে নিয়েই আমরা এগিয়ে যেতে চেষ্টা করবো।’



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :