রাত ৮:২৭, রবিবার, ২৮শে মে, ২০১৭ ইং
/ এশিয়া কাপ / জিতল পাকিস্তান
জিতল পাকিস্তান
ফেব্রুয়ারি ২৯, ২০১৬

১৭ রানেই নেই ৩ উইকেট। তাই এমন ম্যাচ সহজে জিতবে পাকিস্তান-তা হয়ত কেউ ভাবেনি। কিন্তু চতুর্থ উইকেট জুটিতে শোয়েব মালিক আর উমর আকমলের অসাধারণ ব্যাটিংয়ের ওপর ভর করে ৮ বল হাতে রেখেই ৭ উইকেটে জয় তুলে নিল পাকিস্তান। ৬৩ রানে শোয়েব মালিক এবং ৫০ রানে অপরাজিত ছিলেন উমর আকমল।
নিজেদের প্রথম ম্যাচে ভারতের কাছে ৫ উইকেটে হেরে বসা পাকিস্তানের জন্য এ ম্যাচ ছিল খুবই গুরুত্বপূর্ণ। কিন্তু দুর্বল আরব আমিরাত ১২৯ রান তুলে পাকিস্তানকে শক্ত চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দেয়। টার্গেটটা চ্যালেঞ্জিং মনে হয়েছে কারণ পাকিস্তানের শীর্ষ ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতা। ১৩০ রানের ল্েয ব্যাটিং করতে নেমে মাত্র ১৭ রানেই প্রথম সারির তিন উইকেট হারায় তারা। আমিরাত অধিনায়ক আমজাদ নিজের প্রথম ওভার বল করতে এসেই তৃতীয় ও পঞ্চম বলে তুলে নেন শারজিল খান ও খুররম মঞ্জুরের উইকেট। পরের ওভারের প্রথম বলেই আউট করেন অভিজ্ঞ হাফিজকে। আমজাদ জাভেদের বোলিং তোপে চাপে পড়ে যায় পাকিস্তান। কিন্তু শেষ অবদি দলকে বাঁচান আকমল ও মালিক।
pakistan
এর আগে সোমবার মিরপুর শেরে বাংলা স্টেডিয়ামে টস জিতে প্রথমে ব্যাট করতে শুরতেই পাকিস্তানি পেসারদের তোপে আমিরাত। মাত্র ১২ রানে তিন উইকেট হারিয়ে চাপে পড়া আমিরাতকে উদ্ধারের চেষ্টা করেন শাইমান আনোয়ার। এক প্রান্তে দারুণ বিধ্বংসী ব্যাটিং করেন শাইমান আনোয়ার। ৪২ বলে ৪৬ রানের এক দুর্দান্ত ইনিংস খেলেন তিনি। এই রান করতে ৫টি চার ও ২টি ছক্কা মারেন তিনি।
শেষ দিকে অধিনায়ক আমজাদ জাভেদ ও মোহাম্মদ উসমানের ৪৬ রানের জুটিতে লড়াকু সংগ্রহ পায় আমিরাত। অধিনায়ক আমজাদ জাভেদ শেষ পর্যন্ত ব্যাট করে করেন ২৭ রান। ১৮ বল মোকাবেলা করে ৩টি চার ও ২টি ছক্কার সাহায্যে এই রান করেন তিনি।
এছাড়া ১৭ বলে ২টি চার ও ১টি ছক্কার সাহায্যে ২১ রান করেন উসমান। শেষ পর্যন্ত নির্ধারিত ২০ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে ১২৯ রান করে তারা। পাকিস্তানের পে মাত্র ৬ রান দিয়ে ২টি উইকেট পেয়েছেন মোহাম্মদ আমির। এছাড়া মোহাম্মদ ইরফান ৩০ রানে পান ২টি উইকেট।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :