সকাল ১০:৫৩, মঙ্গলবার, ২৫শে জুলাই, ২০১৭ ইং
/ অনূর্ধ্ব ১৯ বিশ্বকাপ / কম রান দেওয়াই লক্ষ্য ছিল শাওনের
কম রান দেওয়াই লক্ষ্য ছিল শাওনের
ফেব্রুয়ারি ২, ২০১৬

অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপে ম্যাচ জেতানো পারফরম্যান্সে ভীষণ খুশি সালেহ আহমেদ শাওন। তরুণ এই বাঁহাতি স্পিনার টুর্নামেন্ট জুড়ে এমন বোলিং করে যেতে চান। সুপার লিগ কোয়ার্টার-ফাইনালে ভারতকে এড়াতে গ্রুপ পর্বে নিজেদের শেষ ম্যাচে নামিবিয়ার বিপক্ষে জিততেই হত বাংলাদেশের। সেই ম্যাচে দলের ৮ উইকেটের জয়ে সবচেয়ে বড় অবদান শাওনের।
“ভালো তো অবশ্যই লাগছে। ম্যান অব দা ম্যাচ হলে কে না খুশি হয়! সবাই খুশি হয়।” ম্যাচ শেষে সংবাদ সম্মেলনে শাওন জানান, উইকেট নেওয়া নয়, কম রান দেওয়াই ছিল তার ভাবনা।
“আমি যখন বোলিং করি, নিজের বোলিংটাই করে যাই। উইকেটের জন্য বোলিং করি না। উইকেট বলে কয়ে নেওয়া যায় না। আমার যেটা ভালো, আমি একটা জায়গায় বোলিং করে যেতে পারি।”
শাওনের ৮ ওভারের চারটিই ছিল মেডেন। ১০ রান দিয়ে নেন দুই উইকেট। সর্বোচ্চ ১৯ রান করা নিকো ড্যাভিনকে দুর্দান্ত এই আর্ম ডেলিভারিতে বোল্ড করেন শাওন। এরপর থেকে দক্ষিণ আফ্রিকার ইনিংসে ছিল শুধুই আসা-যাওয়া। “প্রথম উইকেট..হ্যাঁ ওটা আর্ম ডেলিভারি ছিল। নতুন বলে আমার বল একটু ভেতরে যায় এমনিতেই। ওটা আমার সহজাত। এটাই আমার স্টক ডেলিভারি।”
সেমি-ফাইনালে যাওয়ার ম্যাচে বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ নেপাল। দলটি এরই মধ্যে স্পিন দিয়ে বাংলাদেশকে বধের হুমকি দিয়ে রেখেছে। শেষ আটের প্রতিপক্ষ সম্পর্কে খুব একটা জানেন না শাওন। তবে নিজের ওপর আস্থা থাকায় নেপালের বিপক্ষেও ভালো করার ব্যাপারে আত্মবিশ্বাসী বাঁহাতি এই স্পিনার, “আমি মনে করি, নিজের বোলিং করতে পারলে সব দলের বিপক্ষেই ভালো করব।”



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :