সন্ধ্যা ৭:০০, বৃহস্পতিবার, ১৯শে জানুয়ারি, ২০১৭ ইং
/ অনূর্ধ্ব ১৯ বিশ্বকাপ / শান্তর ‘স্পেশাল’ দিন
শান্তর ‘স্পেশাল’ দিন
জানুয়ারি ৩১, ২০১৬

একদিনেই কতগুলো ঘটনা ঘটে গেলো শান্তর জীবনে। তাইতো এ দিনটি বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দলের সহ-অধিনায়ক নাজমুল হোসেন শান্তর জন্য স্পেশাল হয়ে উঠেছে। রবিবার ম্যাচ সেরা হয়ে সংবাদ সম্মেলনে এসে এই দিনটিকে ‘স্পেশাল ডে’ বলে অভিহিত করেছেন তিনি। হবেই না কেন? এই দিনে শান্তর অর্জনও যে কম নয়!
ছোটদের ওয়ানডে ক্রিকেটে সর্বোচ্চ রানের মালিক এখন নাজমুল হোসেন শান্ত। এছাড়া বিশ্বকাপে প্রথম সেঞ্চুরির পাশাপাশি দল কোয়ার্টার ফাইনালে 914d51686022e8832e5439869fab13e0-খেলার যোগ্যতা অর্জন করেছে। সবকিছুই মিলে দিনটি শান্তর জন্য স্পেশাল হয়ে উঠেছে। শান্ত বলেন, ‘আজ দিনটা আমার জন্য খুব স্পেশাল। কারণ প্রথমেই আমরা দ্বিতীয় রাউন্ডে উঠছি। আমি সেঞ্চুরি পেয়েছি; প্রথম ম্যাচে যা করতে পারেনি। টিম জিতেছে। সব মিলিয়ে এটা আমার জন্য খুব স্পেশাল দিন।’
আগের দিনই জানা গিয়েছিল মাত্র ৬২ রান করতে পারলেই সর্বোচ্চ রানের মালিক হবেন তরুণ এই ব্যাটসম্যান। মাঠে নামার আগে বিষয়টি ভাবনায় ছিলো তার। সেভাবেই পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করেছেন নাজমুল হোসেন শান্ত। এদিন ১১৩ রানের ক্যারিয়ার সেরা ইনিংস খেলেন তিনি। অপরাজিত এই শতকের সুবাদে ৫৪ ম্যাচ তার সংগ্রহ ১৭৪৭ রান।
এ প্রসঙ্গে শান্ত বলেন, ‘রেকর্ড সম্পর্কে আগে থেকে কিছু না জানলেও গতকাল (শনিবার) জেনেছি। আজ ওটা মাথায়ও ছিল। রেকর্ড তো হয়েছে। আমার খুব ভালো লাগছে। রেকর্ড করতেই হবে সেভাবেই কিছু ভাবিনি। তবে চিন্তা করেছি চেষ্টা করবো। আমার আম্মা- আব্বাও ভীষণ খুশি।’
৬২ রান করে মাইলফলক ছোঁয়ার পর শান্তকে জড়িয়ে ধরেন অধিনায়ক মিরাজ। বিষয়টি ব্যাখা করতে গিয়ে শান্ত বলেন, ‘৬২ হওয়ার পর ও (মিরাজ) অনেক ইমোশনাল হয়ে গিয়েছিলো। মনে হচ্ছিল যেন রেকর্ডটা ওই করেছে। ও সব সময় আমাকে এরকম সাপোর্ট করে।’
দলীয় ১৭ রানের মধ্যে দুই উইকেট পড়ে যায় বাংলাদেশের। তাতে কিছুটা চাপে পড়ে বাংলাদেশ। সেই চাপ খুব ভালো মতোই সামাল দেন সাইফ-শান্ত। কী পরিকল্পনা ছিলো জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘উইকেট খুব একটা ভালো ছিল না। বল ব্যাটে আসেনি ঠিকমত। ওই সময় আমার চিন্তায় ছিল সময় নিয়ে স্ট্রাইক রোটেট করা।’



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :