সকাল ৮:২০, বৃহস্পতিবার, ১৯শে জানুয়ারি, ২০১৭ ইং
/ অনূর্ধ্ব ১৯ বিশ্বকাপ / বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের বিদায় করে দিলো নামিবিয়া
বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের বিদায় করে দিলো নামিবিয়া
জানুয়ারি ৩১, ২০১৬

আগের ম্যাচে স্কটল্যান্ডকে উড়িয়ে দিয়ে নিজেদের জানিয়ে দিয়েছিল নামিবিয়া। হুঙ্কার দিয়েছিল বাংলাদেশকেও হারাবে। তবে তার আগে নিজেদের আরও একবার জাহির করলেন তারা। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে দারুণ জয় তুলে মূল পর্বে জায়গা করে নিয়েছে দলটি। ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়নদের বিপক্ষে ৫ উইকেটের জয় পায় আইসিসির সহযোগী এই দেশটি।

আর এই হারে মূল পর্বে খেলার আশা শেষ হয়ে গেলো প্রোটিয়াদের। আগের বিশ্বকাপে চ্যাম্পিয়ন হয়ে এবার মূল পর্বে না খেলার লজ্জায় পরতে হলো দলটিকে। গ্রুপ পর্ব উতরাতে না পারায় এখন তাদের খেলতে হবে প্লেট পর্বে।

রোববার দক্ষিণ আফ্রিকা যুবাদের দেওয়া ১৩৭ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে শুরুটা ভালো হয়নি নামিবিয়ার। দলীয় ১০ রানেই দুই ওপেনারকে হারায় তারা। এরপর নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারালেও ছোট ছোট কয়েকটি জুটিতে অবিশ্বাস্য জয় তুলে নেয় সহযোগী দেশটি। এক প্রান্তে দারুণ ব্যাটিং করে দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৫৮ রান করে অপরাজিত থাকেন লোহান লরেন্স। ৯৭ বলে ৯টি চারের সাহায্যে এই রান করেন তিনি। শেষ পর্যন্ত ১১.১ ওভার বাকি থাকতেই ঐতিহাসিক জয়ের দেখা পায় নামিবিয়ার যুবারা।

দক্ষিণ আফ্রিকার পক্ষে জিয়াদ আব্রাহাম ও শেন হোয়াইটহেড ২টি করে উইকেট পান।

এর আগে কক্সবাজারের শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্রিকেট সস্টেডিয়ামের একাডেমী মাঠে টস জিতে প্রথমে ব্যাট করতে নামে দক্ষিণ আফ্রিকা। তবে ব্যাটিংয়ে নেমে শুরুতেই দারুণ বিপর্যয়ে পড়ে তারা। নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারিয়ে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৯ উইকেট হারিয়ে মাত্র ১৩৬ রান সংগ্রহ করে প্রোটিয়ারা।

আট নম্বরে ব্যাটিং করতে নেমে উইলিয়াম লুডিকের ৪২ রানে মান রক্ষা হয় প্রোটিয়াদের। ৯৮ বলে ৪টি ও ১টি ছক্কার সাহায্যে এই রান করেন তিনি। লুথো সিপামলাকে নিয়ে তার করা ৫৫ রানের জুটিই ছিল ইনিংসের সর্বোচ্চ।

নামিবিয়ার পক্ষে মাইকেল ভ্যান লিঙ্গেন ২৪ রানে ৪ উইকেট পান। এছাড়া ১৬ রানে ৩টি উইকেট নেন ফ্রিটজ কোয়েটজি।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :