ভোজেস-মার্শে অজিদের রানের পাহাড়

ভোজেস-মার্শে অজিদের রানের পাহাড়

অ্যাডাম ভোজেস ও শন মার্শের অপরাজিত সেঞ্চুরিতে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে প্রথম দিন শেষে রানের পাহাড় গড়েছে অস্ট্রেলিয়া। ক্যারিবীয় বোলারদের হতাশ করে দিন শেষে তিন উইকেট হারিয়ে ৪.৯২ গড়ে ৪৩৮ রান তুলেছে স্টিভেন স্মিথ বাহিনী।

হোবার্টে তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম টেস্টে টসে জিতে আগে ব্যাট করতে নামে অজিরা। দলের হয়ে সূচনাটাও ভালো করেন ফর্মে থাকা দুই ওপেনার জো বার্নস ও ডেভিড ওয়ার্নার। ওপেনিং জুটিতে তাদের ব্যাট থেকে আসে ৭৫ রান। তবে ব্যক্তিগত ৩৩ রানে পেসার শেনন গ্যাব্রিয়েলের বলে বোল্ড হন বার্নস।

বার্নস আউট হবার পর ম্যাচে খুব দ্রুতই ফেরে সফরকারীরা। বাঁহাতি স্পিনার জোমেল ওয়ারিকান দ্রুত দুটি উইকেট তুলে নিলে চাপে পড়ে অজিরা। হাফ সেঞ্চুরি করার পর ওয়ারিকানের বলে ৬৪ রান করে ফেরেন ওয়ার্নার। তিনি অবশ্য কিছুটা টি-টোয়েন্টি মেজাজে এদিন ব্যাট চালান। ৬১ বলে ১১টি চারের সাহায্যে ইনিংসটি সাজান তিনি।

এর আগে তৃতীয় উইকেটে নামা অধিনায়ক স্মিথ ক্রিজে নিজেকে বেশি সময় থিতু করতে পারেননি। সেই ওয়ারিকানের বলে জার্মেইন ব্ল্যাকউডের ক্যাচে পরিণত হওয়ার আগে ১০ রান করেন তরুণ এ ব্যাটসম্যান। প্রথম দিনে ক্যারিবীয় বোলারদের এতটুকুই সফলতা। দিনের বাকি সময় কাব্য রচনা করেন ভোজেস ও মার্শ।

একের পর এক দুর্দান্ত শট খেলে দু’জনে মিলে ৩১৭ রানের জুটি গড়ে অবিচ্ছিন্ন থাকেন। চতুর্থ উইকেট জুটিতে এটি অজিদের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রানও। এছাড়া হোবার্টের মাঠেও এটি দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রানের জুটি।

দিন শেষে ২০৪ বলে ১৯টি চারের সাহায্যে ১৭৪ রান করে অপরাজিত থাকেন ডানহাতি ব্যাটসম্যান ভোজেস। ১০০ বলে তৃতীয় সেঞ্চুরির দেখা পাওয়া এ ব্যাটসম্যান হোবার্টের মাঠে দ্রুত সেঞ্চুরির রেকর্ডও গড়েন। আগের রেকর্ডটি ছিল ১৯৯৯ সালে পাকিস্তানের বিপক্ষে অ্যাডাম গিলক্রিস্টের ১১০ বলে।

অন্যদিকে কম যাননি মার্শও। ভোজেসের পর তিনিও করেন ক্যারিয়ারের তৃতীয় সেঞ্চুরি। ২০৫ বল মোকাবেলায় ১২টি চারের সাহায্যে ১৩৯ রানে ‍অপরাজিত এ ব্যাটসম্যান ম্যাচের দ্বিতীয় দিন ভোজেসকে নিয়ে ‍আবারও ব্যাটিংয়ে নামবেন।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




bangladesherkhela.com 2019
Developed by RKR BD